নওগাঁ-৬ আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ইসরাফিল আলম আর নেই

মাননীয় দূর্যোগ ও ত্রান প্রতিমন্ত্রী ডাঃ এনামুর রহমানের ফেসবুক পেইজ থেকে নেওয়াঃ- মন্ত্রী পরিষদের নিয়মিত বৈঠকে যোগদান করার উদ্দেশ্যে সাভার থেকে যখন রওনা হলাম তখনো গাড়িতে উঠেই দোয়া দরুদ পড়ছিলাম নওগাঁ-৬ আসনের সাংসদ Israfil Alam ভাইয়ের জন্য। তখনো খবর পাইনি যে, তিনি আর নেই!

সবাইকে কাঁদিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকালেই তিনি চলে গেছেন না ফেরার দেশে। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন।

“সম্মানিত ঢাকাবাসীগন স্বআরোপিত ভাবে সর্বোচ্চ সতর্কতায় না এলে- করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা এখন সবচেয়ে বেশি”

নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে সম্প্রতি এমন স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন প্রিয় সহকর্মী,নওগাঁর আত্রাই-রাণীনগর আসনের সাংসদ ইসরাফিল আলম।

অথচ সে তিনিই আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রাণঘাতী মহামারী করোনা ভাইরাসে। তারপর ফুসফুসের জটিলতা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মারা যান শ্রমজীবী মানুষের জন্য রাজনীতি করে আসা এই মানুষটি।

মিটার রিডার হিসেবে চাকরি শুরু করেছিলেন,তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডে।

রাজনীতির শুরু সেখানেই। তিতাস কর্মচারী ইউনিয়ন শ্রমিক লীগ থেকে থেকে অটোটেম্পো চালক শ্রমিক ফেডারেশন। জাতীয় ঘাট শ্রমিক লীগের উপদেষ্টা থেকে ঢাকা মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি।

মহান জাতীয় সংসদের তিন বারের এই সাংসদ মৃত্যু পর্যন্ত ছিলেন নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

তৃণমূল থেকে উঠে আসা ইসরাফিল আলম ছিলেন শ্রমজীবী মানুষের কণ্ঠস্বর। সর্বত্রই তার মত এমন দরদী মানুষের আজ খুবই অভাব।

তার মৃত্যুতে আমি কেবল প্রিয় একজন সহকর্মীকেই হারাইনি, দেশ হারালো একজন প্রতিশ্রুতিশীল ও নিবেদিতপ্রাণ রাজনৈতিক নেতাকে।

আওয়ামী লীগ নেতা ইসরাফিল আলম নিজের কর্মগুনেই বেঁচে থাকবেন গণমানুষের হৃদয়ে‌।

Leave a Reply

Your email address will not be published.